1. mizanurrahmanbadol2@gmail.com : Chaloman Shomoy : Chaloman Shomoy
  2. arasif1989@gmail.com : jony :
  3. mashiur2k@gmail.com : mashiur :
  4. trustit24@gmail.com : Admin panel : Admin panel
  5. chalomanshomoy@gmail.com : Polash News : Polash News
  6. info@chalomanshomoy.com : suvash :
করোনায় মৃত্যুর ঝুঁকি ৫২ শতাংশ কমাতে সক্ষম ভিটামিন ডি - চলমান সময়
November 28, 2020, 11:23 am

করোনায় মৃত্যুর ঝুঁকি ৫২ শতাংশ কমাতে সক্ষম ভিটামিন ডি

চলমান ডেস্ক:
  • আপডেট সময় : রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০
  • 96 Time View

যাদের ভিটামিন ডির ঘাটতি রয়েছে তাদের তুলনায় যারা পর্যাপ্ত পরিমাণে এই ভিটামিন গ্রহণ করেন তাদের কোভিড১৯ সংক্রমণে মৃত্যুর ঝুঁকি ৫২ শতাংশ কম। নতুন এক গবেষণায় তথ্য উঠে এসেছে। খবর ডেইলি মেইলের।

আমাদের ইমিউন সিস্টেম অর্থাত্ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ভিটামিন ডি। এমনকি এটি শরীরে বিভিন্ন ধরনের প্রদাহের ক্ষেত্রেও বেশ কার্যকরী। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভিটামিন ডির বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য মানুষের দেহে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

করোনা ভাইরাসের কারণে যাদেরকে বেশ ভুগতে হয়েছে তাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষের ক্ষেত্রেই দেখা গেছে যে, তাদের দেহে ভিটামিন ডির ঘাটতি অনেক বেশি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের দেহে ভিটামিন ডি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

বোস্টন ইউনিভার্সিটির ড. মাইকেল হোলিক তার আগের একটি গবেষণায় দেখেছেন, যারা পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি গ্রহণ করেন তাদের করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হওয়ার আশঙ্কা ৫৪ শতাংশ কম।

ঐ গবেষণায় তিনি এবং তার টিম দেখতে পেয়েছেন যে, যাদের দেহে ভিটামিন ডির ঘাটতি রয়েছে তাদের অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি, বিভিন্ন ধরনের জটিলতায় বেশি ভোগেন এবং অনেক ক্ষেত্রেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন।

অন্যান্য রোগে আক্রান্তদের ক্ষেত্রে দেহে ভিটামিন ডির অভাব করোনায় আক্রান্তের ঝুঁকি অনেক বাড়িয়ে দেয়। ভিটামিন ডির প্রধান উত্স সূর্যের আলো। যারা প্রতিদিন এই ভিটামিন গ্রহণ করছেন তাদের মধ্যে ঠিক কী পরিমাণ মানুষ করোনা থেকে প্রাণে বেঁচে যাচ্ছেন তা এখনো পরিষ্কার নয়।

তবে আমরা জানি যে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৪২ শতাংশ মানুষের দেহেই ভিটামিন ডির ঘাটতি রয়েছে। যদি এই তথ্য সত্যি হয়ে থাকে তবে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এত বেশি মৃত্যুর জন্য ভিটামিন ডির ঘাটতি অন্যতম।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২ লাখ ৮ হাজার ৪৪০ জন। হয়তো ভিটামিন ডি পর্যাপ্ত পরিমাণে গ্রহণ করলে এত বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটত না।

করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি কমাতে ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা উচিত কি না তা নিয়ে এখনো বিতর্ক রয়েই গেছে। তবে এ বিষয়ে সবাই একমত যে, এই ভিটামিন সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং দেহে প্রদাহের মাত্রা কমিয়ে আনতে সক্ষম।

ড. হলিক বলছেন, নতুন গবেষণা সরাসরি প্রমাণ করছে যে, ভিটামিন ডির ঘাটতি রোগের জটিলতাকে কমাতে সক্ষম। বিশেষ করে সাইটোকিন স্টর্ম এবং কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যুর ঝুঁকি কমানো।

তেহরানের একটি হাসপাতালে ভর্তি হওয়া কোভিড-১৯ আক্রান্ত ২৩৫ রোগীর দেহ থেকে রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেছিলেন ড. হলিক এবং তার সহকর্মীরা। এদের মধ্যে ৬৭ শতাংশ রোগীর দেহে ভিটামিন ডি ছিল ৩০ ন্যানোগ্রামের নিচে।

ভিটামিন ডির আদর্শ মাত্রা এখনো পরিষ্কার নয়। তবে ৩০ ন্যানোগ্রাম পর্যন্ত পর্যাপ্ত বিবেচনা করা হয়। এর কম হলেই অপর্যাপ্ত ধরা হয়। যুক্তরাষ্ট্রে নার্সিং হোমে থাকা প্রায় ৬০ শতাংশ বয়স্ক লোকের দেহে ভিটামিন ডির ঘাটতি রয়েছে বলে ধারণা করা হয়।

এর প্রধান কারণ হিসেবে বিবেচনা করা হয় যে, তারা বাড়ির বাইরে কম সময় কাটান। ফলে সূর্যের আলো তেমন একটা পান না। যার কারণে প্রাকৃতিকভাবে তারা ভিটামিন ডি পাচ্ছেন না।

 

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *