1. mizanurrahmanbadol2@gmail.com : Chaloman Shomoy : Chaloman Shomoy
  2. arasif1989@gmail.com : jony :
  3. mashiur2k@gmail.com : mashiur :
  4. trustit24@gmail.com : Admin panel : Admin panel
  5. chalomanshomoy@gmail.com : Polash News : Polash News
  6. info@chalomanshomoy.com : suvash :
“এক রাতের রাণী“র আশায় ২৫ বছর! - চলমান সময়
November 27, 2020, 6:18 am

“এক রাতের রাণী“র আশায় ২৫ বছর!

মোঃ রাজিবুল ইসলাম বাবু নাটোর থেকে :
  • আপডেট সময় : শনিবার, নভেম্বর ২১, ২০২০
  • 51 Time View
একরামুল হকের বাসার ছাদে ফুটন্ত নাইট কুইন ফুল।

এক রাতের রানীর আশায় দীর্ঘ ২৫ বছর পার করেছেন নাটোরের বাগাতিপাড়ার গালিমপুর (পারকুঠী) গ্রামের একরামুল হক। অবশেষে দেখা পেলেন সেই রাণীর।

শুক্রবার(২০ নভেম্বর) রাতে ২৫ বছর অপেক্ষার পর একরামুল হক দেখা পান সেই আরাধ্য রাণীর।

শোনা যায়, ২৫ বছর আগে গালিমপুর (পাককুঠী) গ্রামের ১২০ বছর বয়সী (এখনো জীবিত) অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক নূর মুহাম্মদ সরকারের ছেলে একরামুল হক(৬০) তাদের বাসার ছাদে নাইট কুইন নামের এক ধরনের বিরল প্রজাতির ফুল গাছের ৮টি চারা রোপন করেন। দীর্ঘ ২৫ বছর যত্ন নেওয়ার পর ফুল গাছে দেখা মেলে রাতের রাণীর।

অনেকে মনে করেন, যাঁর বাড়িতে এ ফুল ফোটে তাঁর বাড়িতে সৌভাগ্য বয়ে নিয়ে আসে ফুলটি। এর কারন, নাইট কুইন ফুল বহু সাধনার ফুল। এ ফুলের জন্য অপেক্ষা করতে হয় বছরের পর বছর। দুর্লভ এ ফুলটি কখন কার বাড়ির গাছে ফুটবে তা কেউ বলতে পারে না। এ কারণে কারো বাড়িতে নাইট কুইনের কলি দেখা গেলেই প্রতিদিন বাড়তে থাকে দর্শনার্থীর সংখ্যা। নাইট কুইন ফোটার এই দুর্লভ ক্ষণটি হেলায় হারাতে চায় না কেউই। সন্ধ্যা থেকে ভোর, কেবল এতটুকুই আয়ু এই ফুলের।

জান যায়, নাইট কুইন মূলত বর্ষাকালীন ফুল। গ্রীষ্মের শেষে বা বর্ষার শুরুতে এই ফুল ফোটে। তবে এই ফুল মাঝে মাঝে বছরের যেকোনো সময় ফুটতে দেখা যায়। প্রথমে গাছে একটি-দুটি করে ফুল আসলেও প্রতি বছরে ফুলের সংখ্যা বাড়তে থাকে। একটি গাছে একসাথে ৫০-৬০টি পর্যন্ত ফুল ফুটতে পারে। দারুণ সুগন্ধী ফুল নাইট কুইন মূলত সাদা হয়। তবে মাঝে মাঝে বেগুনী বা মেরুন পাপড়িরযুক্ত নাইট কুইনের দেখা মেলে। অভিজাত সৌন্দর্যের প্রতীক নাইট কুইনের বৈজ্ঞানিক নাম হলো পেনিওসিরিয়াস গ্রেগগিই। এটি ক্যাকটাস প্রজাতির গাছ। নাইট কুইন মোটামুটি দুর্লভ প্রজাতির ফুল। আগে শুধু ইউরোপের কয়েকটি দেশে দেখা গেলেও বর্তমানে তা আমাদের দেশেও মাঝে মাঝে দেখতে পাওয়া যায়।

একরামুল হক জানান, তার বাসার ছাদে নিয়মিত নাইট কুইন ফোটে। শুক্রবার রাতে এক সঙ্গে ফোটে ৮টি ফুল। তবে এর আগে একদিনে সর্বোচ্ছ ১৭টি নাইট কুইন ফুটেছিল। আনসার ও ভিডিপির কর্মশেষ হওয়ার পরে তিনি শখের বসে নাইট কুইন ফুল গাছের চারা রোপন করেছিলেন। আস্তে আস্তে যত্ন নিয়ে ফুল গাছে রাতের রানীকে আনতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি আরও জানান,  এলাকায় এমন ভিন্ন চিন্তা ভাবনা হওয়ার কারনে তাকে অনেকেই ভিন্ন মানুষ হিসেবে চেনেন।

বাগাতিপাড়া সরকারি ডিগ্রি কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক কোয়েল জানান, অনেকেই শখ করে বাসায় টবে নাইট কুইন লাগান। আমার বাসাতেও রয়েছে অনেকগুলো গাছ। নাইট কুইনের বৈজ্ঞানিক নাম পেনিওসিরিয়াস গ্রেগগিই। এটি অনেকটা পদ্ম ফুলের মত দেখতে। রঙ ও সাদা। মৃদু সুগন্ধও আছে। এই ফুল মধ্যরাত পর্যন্ত ফোটে। মধ্যরাত পার হলেই ফুল মিলিয়ে যেতে শুরু করে। আর সেই রাতের অন্ধকারেই হয় তার জীবনাবসান। তিনি আরো জানান, প্রচলিত ধারণা মতে এটাকে সৌভাগ্যের প্রতীক মনে করা হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার মমরেজ আলী বলেন, নাইট কুইনের জন্ম বীজ থেকে নয়, পাতা থেকে। ফুল গাছের এক টুকরো পাতা ছিড়ে মাটিতে ফেলে রাখলে কয়েক দিনের মধ্যে পাতার চারদিকে চারা গজিয়ে যায়। নাইট কুইন ফুলকে জড়িয়ে নানা গল্প প্রচলিত আছে। এই গাছের যত্ন আত্তি করতে হয় অনেক। নাইট কুইন ফুল ফোটানো বেশ শ্রমসাধ্য ব্যাপার বলেই তা সকলের কাছেই আরাধ্য।

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *