1. mizanurrahmanbadol2@gmail.com : Chaloman Shomoy : Chaloman Shomoy
  2. arasif1989@gmail.com : jony :
  3. mashiur2k@gmail.com : mashiur :
  4. trustit24@gmail.com : Admin panel : Admin panel
  5. chalomanshomoy@gmail.com : Polash News : Polash News
  6. info@chalomanshomoy.com : suvash :
শুরু হয়েছে অস্ট্রেলিয়ায় ভ্যাকসিন প্রয়োগ - চলমান সময়
March 3, 2021, 2:28 pm

শুরু হয়েছে অস্ট্রেলিয়ায় ভ্যাকসিন প্রয়োগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, চলমান সময়
  • আপডেট সময় : সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১
  • 31 Time View

অস্ট্রেলিয়ায় সোমবার থেকে জনসাধারণের মধ্যে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ কর্মসূচী শুরু হয়েছে। ভ্যাকসিন বিরোধী প্রচারণার মাঝেই এ কার্যক্রম শুরু করেছে দেশটির সরকার। খবর এএফপির।

এ সপ্তাহে ৬০ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন দেয়া হবে। প্রথম পর্যায়ে স্বাস্থ্যকর্মী, হোটেল কোয়ারেন্টাইনের কর্মী, পুলিশ প্রমুখ সামনের সারির কর্মীরা ভ্যাকসিন পাবেন। এছাড়া বৃদ্ধাশ্রমের প্রবীণ নাগরিকদেরও প্রথম পর্যায়ে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

সোমবার দেশটির টেলিভিশনগুলোতে সকালের খবরে দেখা যায়, মেলবোর্ন ও সিডনির চিকিৎসা ও কোয়ারেন্টাইন কর্মীদের ভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে। দেশবাসীকে ভ্যাকসিনের বিষয়ে আশ্বস্ত করতে গতকাল অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন।

ভ্যাকসিনের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন শহরে বিচ্ছিন্নভাবে প্রতিবাদ হয়েছে। রোববার রাতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে গ্যালারির দর্শকরা ভ্যাকসিনের বিরুদ্ধে সমস্বরে চিৎকার করে ওঠে।

রোববার নোভাক জকোভিচ নবমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে বিজয়ী হন। পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে টেনিস অস্ট্রেলিয়ার চেয়ারম্যান জেইন রিডলিকা আশা প্রকাশ করেন, মহামারির কারণে পেশাদার খেলায় যে বিঘ্ন তৈরি হয়েছিল; ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম তার অবসান ঘটাতে সাহায্য করবে। এ সময় গ্যালারির সাড়ে সাত হাজার দর্শক রিডলিকার ব্যক্তব্যের বিরুদ্ধে ‘বু’ ধ্বনি তুলে চিৎকার দেয়।

ভ্যাকসিন বিরোধী বিক্ষোভের পরেও এক জরিপে দেখা গেছে, ৮০ ভাগ অস্ট্রেলীয় ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী।

করোনাভাইরাস মহামারি নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের অন্যতম সফল দেশ অস্ট্রেলিয়া। মহামারি শুরু হওয়ার পরপরই দ্রুত সময়ের মধ্যে সীমান্ত বন্ধ করা, কঠোরভাবে লকডাউনে মেনে চলা, নিবিড়ভাবে করোনা পরীক্ষা করা ও কন্টাক্ট ট্রেসিংয়ের মাধ্যমে দেশটি ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক পর্যায়ে ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন দিয়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। পরবর্তীকালে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন ব্যবহার করা হবে। আগামী ২৫ অক্টোবরের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার আড়াই কোটি জনসংখ্যাকে ভ্যাকসিন দেয়া সম্পন্ন হবে বলে সরকার জানিয়েছে।

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *