1. mizanurrahmanbadol2@gmail.com : Chaloman Shomoy : Chaloman Shomoy
  2. arasif1989@gmail.com : jony :
  3. mashiur2k@gmail.com : mashiur :
  4. trustit24@gmail.com : Admin panel : Admin panel
  5. chalomanshomoy@gmail.com : Polash News : Polash News
  6. info@chalomanshomoy.com : suvash :
লঞ্চে যাত্রীর অবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি না মানার তাগিদ দেয় - চলমান সময়
April 22, 2021, 3:19 am
শিরোনাম:
কাদের মির্জার শান্তির ডাক, নিছক কুটকৌশল ছাড়া আর কিছুই নয়: উপজেলা আ’লীগ বেগমগঞ্জে সূর্যমুখি চাষে ঝুঁকছে প্রান্তিক কৃষক হিলিতে দুই চাল দোকানীকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা পুলিশ সুপারের উদ্যোগে ১০ বছর পর বসতভিটা ফিরে পেল নাটোরের কল্পনা পাহান  ঝালকাঠিতে ডায়রিয়া পরিস্থিতির অবনতি, কারণ অনুসন্ধানে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের রোগ নিয়ন্ত্রণ সেল সুনামগঞ্জে অবৈধ বালি ও পাথরসহ ২৫টি নৌকা আটক, ১জনের কারাদন্ড ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনে ভ্রাম্যামাণ আদালতের জরিমানা ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসকের মাস্ক বিতরণ নিজের ১৬ আনা ঠিক রেখেই প্রস্তাব তুলে ধরলেন মির্জা: উপজেলা আ’লীগ পাঁচ বোলার নিয়ে লড়াইয়ে নামছে বাংলাদেশ

লঞ্চে যাত্রীর অবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি না মানার তাগিদ দেয়

জাতীয় ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শনিবার, এপ্রিল ৩, ২০২১
  • 14 Time View
সংগৃহিত

লঞ্চে ভিড় লেগেছে যাত্রীদের। কোনো ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই নেই। অর্ধেক যাত্রী উঠানোর যে নির্দেশনা রয়েছে তা মানা হচ্ছে না।

শনিবার (৩ এপ্রিল) সরেজমিনে ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে যাত্রীদের প্রচণ্ড ভিড় দেখা গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, লঞ্চের ডেকে যাত্রীরা শুয়ে-বসে, ঘেঁষাঘেঁষি করে অবস্থান করছেন। মুখে মাস্ক পরা থাকলেও যাত্রীরা লঞ্চের মধ্যে জট বেঁধে কেউ কার্ড খেলছেন, কেউ ছক্কা, কেউ আবার জড়ো হয়ে আড্ডা দিচ্ছেন।

চাঁদপুরগামী ঈগল-৭ লঞ্চে দেখা গেছে, লঞ্চের ভেতর মানুষের ছড়াছড়ি ও হইচই। লঞ্চ কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য ডেকে দাগ টেনে বসার স্থান নির্ধারণসহ বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়ে রেখেছে তা মানছে না যাত্রীরা। তিনতলা এ লঞ্চের পুরোটার চিত্র একই।

চাঁদপুরগামী যাত্রী সাগর হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ‘লঞ্চে অর্ধেকের বেশি যাত্রী নেয়া হচ্ছে। কিন্ত ভাড়া ৬০ শতাংশ বেশিই নিচ্ছে। আগে ডেকে ভাড়া ছিল ১২০, এখন ১৮০। কিন্তু যাত্রী আগের মতোই বোঝাই করে নিচ্ছে।’

এ বিষয়ে ঈগল লঞ্চের কেরানি বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, ‘এক ফ্যামিলির পাঁচজন সদস্য সিট না নিয়ে ডেকে করে যাচ্ছেন। আমরা দাগ টেনে দিয়েছি তারা সেগুলা মানছেন না। এরকম অনেক ফ্যামিলি চাদর বিছিয়ে নিজেদের মতো করে যাচ্ছেন।

ভাড়ার বিষয়ে বলেন, ‘সরকার থেকে যত টুকু ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছে আমরা তত টুকুই নিচ্ছি। কেবিনে ভাড়া বাড়ানো হয়নি। শুধু ডেক, আর চেয়ার কোচের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।’

ঢাকা থেকে ইলিশা যাওয়া আল ওয়ালিদ লঞ্চেও দেখা মিলেছে একই চিত্র। সেখানেও লঞ্চের প্রায় সব চেয়ারে যাত্রীদের বসে থাকতে সেখা গেছে। ডেকেও একসঙ্গে শুয়ে-বসে রয়েছেন তারা।

এ লঞ্চের ম্যানেজার সিরাজ উদ্দীন জানান, ‘আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য পর্যাপ্ত নির্দেশনা দিয়ে থাকলেও যাত্রীরা সেটা মানছেন না। আমরা অর্ধেকের কম যাত্রী নিয়ে চলার চেষ্টা করি। কিন্তু যাত্রীদের অধিকাংশই ডেকে যাওয়ার চেষ্টা করেন তাই ভিড় দেখাচ্ছে বেশি।’

ঢাকা নদী বন্দর ও পরিবহন বিভাগের উপ-পরিচালক এহতেশামুল হক পারভেজ জাগো নিউজকে বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য আমাদের লঞ্চ মালিক পর্যাপ্ত নির্দেশনা দিয়ে থাকলেও যাত্রীরা সেটি মানছেন না। এতে আমাদের কিছু করার নেই।’

অর্ধেকের বেশি যাত্রী নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি অবগত নই। তবে শুক্র ও শনিবার একটু ভিড় বেশি হচ্ছে।’

সোমবার থেকে দেয়া লকডাউনে আগামী এক সপ্তাহ লঞ্চ চলাচল করবে কিনা এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সরকার আমাদের যে সিদ্ধান্ত দেয় আমরা সে সিদ্ধান্ত মেনে চলব।’

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *