1. mizanurrahmanbadol2@gmail.com : Chaloman Shomoy : Chaloman Shomoy
  2. arasif1989@gmail.com : jony :
  3. mashiur2k@gmail.com : mashiur :
  4. trustit24@gmail.com : Admin panel : Admin panel
  5. chalomanshomoy@gmail.com : Polash News : Polash News
  6. info@chalomanshomoy.com : suvash :
ঝালকাঠিতে ডায়রিয়া পরিস্থিতির অবনতি, কারণ অনুসন্ধানে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের রোগ নিয়ন্ত্রণ সেল - চলমান সময়
May 9, 2021, 2:23 am
শিরোনাম:
৭১-এ পরাজয় নিশ্চিত জেনে পাকিস্তানিরা যে কাজ করেছে, মির্জাও তা করছে: বাদল আর কোন ছাড় দেবোনা, কাদের মির্জাকে প্রতিহত করা হবে: মঞ্জু বাঙালির চেতনা-মননের প্রধান প্রতিভূ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর : রাষ্ট্রপতি সুনামগঞ্জে ৬ টুকরো লাশ উদ্ধারের ঘটনায় নারীসহ গ্রেফতার-৬ হালদায় অভিযান, এক হাজার মিটার নিষিদ্ধ জাল জব্দ আবর্জনায়পূর্ণ চৌমুহনী শহরের খালগুলো লাউড়গড় সীমান্তে অবৈধ বালি-পাথরসহ ৩টি নৌকা ও ২টি ট্রাক আটক কোম্পানীগঞ্জে ফের বাস ভাংচুর করেছে মির্জা অনুসারীরা দল থেকে পদত্যাগের পর আ’লীগ নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে হয়রানী করছে কাদের মির্জা কোম্পানীগঞ্জে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের উপর মির্জা অনুসারীদের হামলা, আহত-৪

ঝালকাঠিতে ডায়রিয়া পরিস্থিতির অবনতি, কারণ অনুসন্ধানে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের রোগ নিয়ন্ত্রণ সেল

বাঁধন রায়, ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : বুধবার, এপ্রিল ২১, ২০২১
  • 29 Time View

ঝালকাঠি জেলায় বিগত ১০-১২ বছরের মধ্যেও ডায়রিয়ার এমন ভয়বহতা দেখা যায়নি। ১ সপ্তাহ ধরে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বেড়েই চলেছে। ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীদের সাথে কথা বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের আওতাধীন রোগ নিয়ন্ত্রণ সেলের কর্মকর্তারা মাঠ পর্যায় এসে ঝালকাঠির সুগন্ধা ও বিষখালি নদী এবং পুকুর জলাশয় থেকে পানি সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য নিয়ে গেছেন। ষাট দশক থেকে সত্তর দশক পর্যন্ত দক্ষিণ অঞ্চলের জেলাগুলিতে কলেরার প্রাদুর্ভাবের কারণে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। পরবর্তীতে দীর্ঘ এক দশক ধরে স্বাস্থ্যবিভাগের কলেরা জিবাণু নির্মুল কর্মসূচির সফলতা হিসাবে কলেরা ভাইরাসের জিবাণু নির্মুল হয়েছিল।

বর্তমান ডায়রিয়ার পরিস্থিতিতে কারণ অনুসন্ধানে নদ-নদীর পানিতে কলেরার জিবাণু সুপ্ত অবস্থায় থাকতে পারে কিনা তা যাচাই করতে পানি পরীক্ষা করা হচ্ছে।

ডায়রিয়া আক্রান্ত জেলার মধ্যে সদর উপজেলা ও নলছিটি উপজেলায় আক্রান্তদের সংখ্যা পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। জেলার অন্য দু’টি উপজেলা রাজাপুর ও কাঠালিয়ায় আক্রান্তদের হার তুলনামুলক কম। গত ২৪ ঘন্টায় ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ১০৪ জন ও মঙ্গলবার বেলা ১২টা পর্যন্ত আরও ৫৩ জন ভর্তি হয়েছে এবং নলছিটি উপজেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ১৬০ জন আক্রান্ত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে ৬০ ভাগ রোগী চিকিৎসা সেবা নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করেছেন। জেলায় গত ১ সপ্তাহে হাসপাতালগুলিতে ৩ হাজারের মত রোগী ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছে।

বর্তমানে রাজাপুর উপজেলায়ও ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। মর্মে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে।

এই উপজেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৫৫ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। করোনা ভাইরাসের সিমটমের মধ্যে ডায়রিয়াও একটি উপসর্গ। এজন্য ডায়রিয়া রোগীদের মধ্যে সোমবার করোনা পরীক্ষার জন্য প্রাথমিকভাবে ১০ জনের নমুনা সংগ্রহ করে বরিশাল শেবাচিম করোনা ইউনিটের ল্যাবে পাঠানো হয়েছে এবং তাদের সকলের রিপোর্ট নিগেটিভ এসেছে।

মঙ্গলবার আরও ১০ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য বরিশাল করোনা ইউনিটের ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

ঝালকাঠির সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালী জানান, আচমকা এই ডায়রিয়ার প্রকোপ জেলা জুড়ে বেড়ে যাওয়ায় ঔষধের মজুত শেষ হয়ে আসছে। আইভি স্যালাইনের জন্য চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে ঝালকাাঠির সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু ১ হাজার ব্যাগ আইভি স্যালাইন ও জেলা প্রশাসক বিভাগীয় কমিশনারের দেয়া ৫ হাজার ব্যাগ আইভি স্যালাইন স্বাস্থ্যবিভাগের কাছে হস্তান্তর করেছে। এগুলো দিয়ে আরও কয়েকদিন সামাল দেয়া যাবে।

সম্পাদনা: প্রশান্ত সুভাষ চন্দ, চীফ রিপোর্টার।

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *